এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন

আপনার এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন করা আছে কয়টি, যেভাবে জানবেন

তথ্য প্রযুক্তি মোবাইল
বায়োমেটিক্স পদ্ধতি ব্যবহার শুরু করার পর থেকে নামে বেনামে বিভিন্ন এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন করার প্রবনতা কিছুটা কমে গেলেও একেবারে থেমে যায়নি। টেকনিক্যাল ত্রুটি বা ডিজিটাল জুয়াচুরির মাধ্যমে এক জনের এনআইডিতে আরেক জন সিম ব্যবহার করে থাকে। যার ফলে ভুক্তভোগীকে নানান ঝামেলায় পড়তে হয়।
শুনতে অবাক লাগলেও ল্যাপটপ চলবে এন্ড্রোয়েড অপারেটিং সিস্টেমে
আপনি যে কোন মোবাইল অপারেটরের সিম ব্যবহার করেন না কেন, সেটি থেকেই আপনি খুব সহজেই *১৬০০১# নাম্বার ডায়াল করে জেনে নিতে পারবেন আপনার এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন করা আছে কয়টি। ডায়াল করার পর আপনার নাম্বারে একটি ফিরতি এসএমএস আসবে।
জিডি করতে আর থানায় যেতে হবে না ,এবার ঘরে বসে অনলাইনে জিডি করুন খুব সহজেই
ফিরতি ম্যাসেজে আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ড বা এনআইডির শেষের ৪ টি সংখ্যা লিখতে বলবে।
পরবর্তীতে আবারো একটি এসএমএসের মাধ্যমে আপনার এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন করা আছে কয়টি তার একটি তালিকা দেখাবে।
আপনার ফোনের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত? কয়েকটি নিয়ম মেনে কিভাবে ফোন সুরক্ষিত রাখতে হয় জেনে নিন
পেগাসাস স্পাইওয়্যার দিয়েও আপনার ফোন হ্যাক করতে পারবে না
তবে আপনি শুধুমাত্র রেজিস্ট্রেশন করা নাম্বার গুলোর প্রথম ৩ টি সংখ্যা এবং শেষের ৩ টি সংখ্যা দেখতে পাবেন।
sim একটি সংক্ষিপ্ত শব্দ যার পূর্নরুপ হলো সাবস্ক্রাইবার আইডেনটিটি মডিউল।
বিনামূল্যে বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ারে কথা বলবেন
আপনার পছন্দের মোবাইল অপারেটর কোম্পানী প্রদেয় সিম কার্ডটি মোবাইল ডিভাইসে তুলে কথা বলা বা ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা পাওয়া যায়।
তার আগে সিম কার্ডটি কেনার জন্য আপনার এনআইডি ভেরিফিকেশন এবং বায়োমেটিক্স পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে।
ঘরে বসেই জেনে নিন ট্রেনের বর্তমান অবস্থান
কথা অনেক হলো এখন আসুন আমরা হাতে কলমে জেনে নিই যে, আমার এনআইডিতে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা আছে।

আপনার এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন কয়টি করা আছে ,জানার উপায়

সিম কার্ড নিবন্ধন ,ব্যবহারের সময়সীমা ইত্যাদি নানা বিষয়ে বিটিআরসির অনেক নিয়ম কানুন বা দিক নির্দেশনা রয়েছে।

এন আইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন

যেমন , একটা এনআইডি কার্ডের বিপরীতে আপনি সর্ব্বোচ্চ ১৫ টি সিম কার্ড রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।
দেখে নিন বাংলালিংকের এসএমএস প্যাকেজ গুলো
এছাড়াও এই ডিজিটাল প্রতারনার যুগে আপনার এনআইডি ব্যবহার করে কে কোথায় থেকে প্রতারনা করছে এটা জানতে হলে প্রথমে আপনাকে জানতে হবে আপনার এনআইডিতে রেজিস্ট্রেশন করা সিমের সংখ্যা কয়টি।
গ্রামীনফোনের ইন্টারনেট প্যাকেজের বিস্তারিত দেখে নিন

এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন যাচাই করার উপায়

আপনার ব্যবহ্রত প্রিপেইড বা পোষ্ট পেইড বা যে কোন অপারেটরের সিম থেকে আপনার ভোটার আইডি কার্ডে নথিভুক্ত হওয়া সিমের সংখ্যা জানতে পারবেন।
মোবাইল ডাটা ব্যববহারের মেয়াদ নিয়ে বিভ্রান্তি কেন
আজকের পোষ্টে আমরা স্টেপ বাই স্টেপ দেখাবো কিভাবে আপনার এনআইডিতে নিবন্ধনকৃত সিমের সংখ্যা জানার উপায়।
যাতে করে আপনি অবাঞ্চিত বিড়ম্বনা এড়াতে পারেন। আপনি আলাদা অপারেটরের গ্রাহক হিসাবে আলাদা ভাবে এনআইডিতে রেজিষ্টেশন করা সিমের নাম্বার গুলো দেখতে পাবেন।
বিকাশ কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধির সাথে কথা বলুন বিনামূল্যে
এজন্য প্রথমে আপনাকে আপনার মোবাইল থেকে *১৬০০১# ডায়াল করতে হবে। একটা ফিরতি এসএমএসে আপনার এনআইডির শেষের চারটি সংখ্যা লিখতে বলবে।
ফোনের imei নাম্বার কিভাবে জানবেন ,দেখে নিন
আপনি সংখ্যা গুলো লিখে সাবমিট করুন। সর্বশেষ পর্যায়ে আপনার এনআইডিতে রেজিস্ট্রেশন করা সিমের তালিকা সম্বলিত একটা ম্যাসেজ পাবেন।
মোবাইলে টাইপ করতে করতে বিরক্ত? এবার মুখে বলে বাংলা টাইপ করুন অনায়াসেই
তবে আপনার রেজিস্ট্রেশন করা নাম্বার গুলো পুরাটা দেখতে পাবেন না। যেমন, ম্যাসেজে পাঠানো তালিকায় নাম্বার গুলো আপনি +৮৮০১১১***২২২ এভাবে দেখতে পাবেন।
আরোও( বিস্তারিত জানার জন্য বিটিআরসির ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

শেষকথা

BTRC এর নির্দেশনা অনুযায়ী যেকোন গ্রাহক এই সেবাটি বিনামূল্য পাবে।
অর্থাৎ এনআইডিতে সিম রেজিস্ট্রেশন যাচাই প্রক্রিয়ায় কোন চার্জ কাটা হবে না। বিধায় আপনি বিনামূল্যে এই তথ্যসেবা টা পেয়ে যাচ্ছেন।