Train location bd

Train location bd । ট্রেন কোথায় আছে জেনে নিন ঘরে বসেই

তথ্য প্রযুক্তি বাংলাদেশ

ষ্টেশনে বসে আর ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে না। Train location bd এর মাধ্যমে এবার ঘরে বসেই ট্রেনের লোকেশন জানা যাবে মোবাইল এসএমএসে।

 

Train Tracking System/ট্রেন ট্রাকিং সিস্টেমঃ-

আপনাকে আর ট্রেন কখন আসবে সেই আশায় ষ্টেশনে বসে থাকতে হবে না।ট্রেন ধরার উদ্দ্যেশ্যে বাড়ি থেকে বের হবার আগে মাত্র একটি এসএমএস দিয়ে জেনে নিতে পারবেন ট্রেনের বর্তমান লোকেশন।

 

কাংখিত ট্রেন লোকেশন জানার জন্য যে কোন অপারেটর মোবাইল ফোনে বড় হাতের অক্ষরে TR লিখে স্পেস দিয়ে ট্রেনের নাম বা কোড (সকল ট্রেনের কোড নাম্বার নীচে দেওয়া আছে) লিখে 16318 নম্বরে ম্যাসেজ পাঠাতে হবে,  ফিরতি ম্যাসেজে পাওয়া যাবে কাঙ্খিত ট্রেনের অবস্থান, বিলম্ব সময়সহ প্রয়োজনীয় তথ্য। প্রতি এসএমএসে ভ্যাটসহ খরচ হবে ৪ টাকা ৬০ পয়সা।
তাছাড়াও জানতে পারবেন ট্রেনটি আপনার ষ্টেশনে আসতে আর কত সময় লাগতে পারে।সেই হিসাব করে ষ্টেশনের উদ্দ্যশ্যে রওয়ানা দিলেন।এতে ষ্টেশনে বসে আর আপনাকে ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে না।মুল্যবান সময় বাঁচাতে একটি এসএমএস ই যথেষ্ট।

 

তো আসুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে বাড়িতে বসে ট্রেন লোকেশন জানা যায়।এজন্য আপনাকে নিচের পদ্ধতিতে শুধু একটি এসএমএস পাঠাতে হবে।

 

Train location bd ট্রেনের লোকেশন জানার উপায়ঃ-

প্রযুক্তি ঘরে বসে ট্রেনের অবস্থান নির্ণয় এর উপায় করে দিয়েছে। আপনার মুঠোফোনের একটি এসএমএস এর মাধ্যমে জানা যাবে আপনার কাঙ্ক্ষিত ট্রেন লোকেশন।
হাজারো অব্যবস্থাপনার মধ্যেও বর্তমানে মানুষের কাছে ট্রেনই একমাত্র স্বত্বিদায়ক নিরাপদ যাত্রার মাধ্যম।তবে, টিকিট কেটে যথাসময়ে স্টেশন এ উপস্থিত হয়ে, ট্রেনের অপেক্ষায় বসে থাকতে থাকতে রাত ভোর হওয়া বা সকাল গড়িয়ে সন্ধা নামা বাংলাদেশ রেলওয়ের নিত্য দিনের ছবি।

 

তবে, ছোট্র একটা প্রযুক্তির কল্যানে ট্রেনের যাত্রীদের এই চিরসংগী ভোগান্তি থেকে মুক্তি দিয়েছে।সাধারন জিপিএস এবং জিপিআরএস প্রযুক্তির মাধ্যমে যাত্রী তার মোবাইল এসএমএস এর মাধ্যমে বাড়িতে বসেই জেনে নিতে পারবে কাংক্ষিত ট্রেনের বর্তমান লোকেশন, পরের স্টেশনের নাম এবং কতক্ষন দেরীতে ট্রেন আসবে সেইসব তথ্য।এজন্য সহজ একটা পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

 

Train location bd নির্ণয় পদ্ধতি:-

মোবাইলের ম্যাসেজ অপশানে গিয়ে টাইপ করতে হবে TR (ট্রেন কোড)
এবং ১৬৩১৮ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএস এ আপনি আপনার কাংক্ষিত ট্রেনের লোকেশন সহ যাবতীয় তথ্য পেয়ে পাবেন।
সেই অনুযায়ী স্টেশনের উদ্দ্যেশে রওয়ানা দিয়ে অযাচিত ভোগান্তি থেকে সহজেই বাচতে পারবেন।ট্রেনের অপেক্ষায় ষ্টেশনে ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকতে হবে না।

 

ট্রেন কোডঃ

প্রত্যেক টিকিটে অই ট্রেনের কোডটি (উপরে ডানে) দেওয়া থাকে। তারপরও আপনাদের সুবিধার জন্য প্রতিটি ট্রেনের ট্রেন কোড গুলো নিচে দেওয়া হলো। আশা করি সকলের কাজে লাগবে।

 

সকল ট্রেনের কোড নাম্বার:-

বন্ধের দিন গন্তব্যসহ বাংলাদেশের সকল ট্রেনের কোড নাম্বার গুলো নিম্নে তুলে ধরা হলো। আশা করি এতে সকলেই উপকৃত হবেন।

ট্রেনের নাম: ট্রেন কোড: বন্ধের দিন: হইতে: গন্তব্য:

 

ঢাকা-চট্রগ্রাম

সুবর্না এক্সপ্রেস, ৭০১, সোমবার, চট্রগ্রাম, ঢাকা,
সুবর্না এক্সপ্রেস, ৭০২,, সোমবার, ঢাকা, চট্রগ্রাম,
মহানগর গোধুলি, ৭০৩, নাই, চট্রগ্রাম, ঢাকা,
মহানগর প্রভাতি, ৭০৪, নাই, ঢাকা, চট্রগ্রাম,
মহানগর এক্সপ্রেস, ৭২১,, রবিবার, চট্রগ্রাম, ঢাকা,
মহানগর এক্সপ্রেস, ৭২২, রবিবার, ঢাকা, চট্রগ্রাম,
সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, ৭৮৭, মঙ্গলবার, চট্রগ্রাম, ঢাকা,
সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, ৭৮৮, বুধবার, ঢাকা, চট্রগাম,
তুর্না এক্সপ্রেস, ৭৪১, নাই, চট্রগ্রাম, ঢাকা,
তুর্না এক্সপ্রেস, ৭৪২, নাই, ঢাকা, চট্রগ্রাম

ঢাকা-সিলেট

পারাবাত এক্সপ্রেস, ৭০৯,মঙ্গলবার, ঢাকা, সিলেট,
পারাবাত এক্সপ্রেস, ৭১০, মঙ্গলবার, সিলেট, ঢাকা,
জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস, ৭১৭, নাই, ঢাকা, সিলেট,
জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস, ৭১৮, বৃহস্পতিবার, সিলেট, ঢাকা,
উপবন এক্সপ্রেস, ৭৩৯, বুধবার, ঢাকা, সিলেট,
উপবন এক্সপ্রেস, ৭৪০, নাই, সিলেট, ঢাকা,
কালানি এক্সপ্রেস, ৭৭৩, শুক্রবার, ঢাকা, সিলেট,
কালানি এক্সপ্রেস, ৭৭৪, শুক্রবার, সিলেট, ঢাকা,

 

ঢাকা-রাজশাহী

সিল্কসিটি এক্সপ্রেস, ৭৫৩,, রবিবার, ঢাকা, রাজশাহী,
সিল্কসিটি এক্সপ্রেস, ৭৫৪, রবিবার, রাজশাহী, ঢাকা,
পদ্মা এক্সপ্রেস, ৭৫৯, বুধবার, ঢাকা, রাজশাহী,
পদ্মা এক্সপ্রেস, ৭৬০, বুধবার, রাজশাহী, ঢাকা,
ধুমকেতু এক্সপ্রেস, ৭৬৯,, শনিবার, ঢাকা, রাজশাহী,
ধুমকেতু এক্সপ্রেস, ৭৭০, শনিবার, রাজশাহী, ঢাকা,

ঢাকা-খুলনা

সুন্দরবন এক্সপ্রেস, ৭২৫,, মঙ্গলবার, খুলনা, ঢাকা,
সুন্দরবন এক্সপ্রেস,৭২৬, বুধবার, ঢাকা, খুলনা,
চিত্রা এক্সপ্রেস, ৭৬৩, সোমবার, খুলনা, ঢাকা,
চিত্রা এক্সপ্রেস, ৭৬৪, সোমবার, ঢাকা, খুলনা,

ঢাকা-রংপুর

রংপুর এক্সপ্রেস, ৭৭১, রবিবার, ঢাকা, রংপুর,
রংপুর এক্সপ্রেস, ৭৭২, রবিবার, রংপুর, ঢাকা,

ঢাকা – পঞ্চগড়

পঞ্চগড় এক্সপ্রেস, ৭৯৩, ঢাকা, পঞ্চগড়

 

ঢাকা-কিশোরগঞ্জ

এগারো সিন্ধুর প্রভাতি, ৭৩৭, বুধবার, ঢাকা, কিশোরগঞ্জ
এগারো সিন্ধুর প্রভাতি, ৭৩৮, নাই, কিশোরগঞ্জ, ঢাকা,
এগারো সিন্ধুর গোধুলি, ৭৪৯, নাই, ঢাকা, কিশোরগঞ্জ,
এগারো সিন্ধুর গোধুলি, ৭৫০, বুধবার, কিশোরগঞ্জ, ঢাকা,
কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস, ৭৮১, শুক্রবার, ঢাকা, কিশোরগঞ্জ,
কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস, ৭৮২, শুক্রবার, কিশোরগঞ্জ, ঢাকা,

চট্রগ্রাম-সিলেট

পাহাড়িকা এক্সপ্রেস, ৭১৯, সোমবার, চট্রগ্রাম, সিলেট,
পাহাড়িকা এক্সপ্রেস, ৭২০, শনিবার, সিলেট, চট্রগ্রাম,
উদয়ন এক্সপ্রেস, ৭২৩, শনিবার, চট্রগ্রাম, সিলেট,
উদয়ন এক্সপ্রেস, ৭২৪, রবিবার, সিলেট, চট্রগ্রাম,

চট্রগ্রাম-ময়মনসিংহ

বিজয় এক্সপ্রেস, ৭৮৫, বুধবার, চট্রগ্রাম, ময়মনসিংহ,
বিজয় এক্সপ্রেস, ৭৮৬, মঙ্গলবার, ময়মনসিংহ, চট্রগ্রাম,

খুলনা-রাজশাহী

কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস, ৭১৫, শনিবার, খুলনা, রাজশাহী,
কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস, ৭১৬, শনিবার, রাজশাহী, খুলনা,
সাগরদাড়ি এক্সপ্রেস, ৭৬১, সোমবার, খুলনা, রাজশাহী,
সাগরদাড়ি এক্সপ্রেস, ৭৬২, সোমবার, রাজশাহী, খুলনা,

 

ঢাকা-দিনাজপুর

একতা এক্সপ্রেস, ৭০৫, মঙ্গলবার, ঢাকা, দিনাজপুর,
একতা এক্সপ্রেস, ৭০৬, সোমবার, দিনাজপুর, ঢাকা,
দ্রুতযান এক্সপ্রেস, ৭৫৭, বুধবার, ঢাকা, দিনাজপুর,
দ্রুতযান এক্সপ্রেস, ৭৫৮, বুধবার, দিনাজপুর, ঢাকা,

ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ

তিস্তা এক্সপ্রেস, ৭০৭, সোমবার, ঢাকা, দেওয়ানগঞ্জ,
তিস্তা এক্সপ্রেস, ৭০৮, সোমবার, দেওয়ানগঞ্জ, ঢাকা,
বক্ষ্মপুত্র এক্সপ্রেস, ৭৪৩, নাই, ঢাকা, দেওয়ানগঞ্জ,
বক্ষ্মপুত্র এক্সপ্রেস, ৭৪৪, নাই, দেওয়ানগঞ্জ, ঢাকা,

ঢাকা-সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস, ৭৭৫, শনিবার, সিরাজগঞ্জ, ঢাকা,
সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস, ৭৭৬, শনিবার, ঢাকা, সিরাজগঞ্জ,

ঢাকা-তারাকান্দি(জামালপুর)

অগ্নিবীনা এক্সপ্রেস, ৭৩৫, নাই, ঢাকা, তারাকান্দি,
অগ্নিবীনা এক্সপ্রেস, ৭৩৬, নাই, তারাকান্দি, ঢাকা,
যমুনা এক্সপ্রেস, ৭৪৫, নাই, ঢাকা, তারাকান্দি,
যমুনা এক্সপ্রেস, ৭৪৬, নাই, তারাকান্দি, ঢাকা,

ঢাকা-চিলাহাটি

নীলসাগর এক্সপ্রেস, ৭৬৫, সোমবার, ঢাকা, চিলাহাটি,
নীলসাগর এক্সপ্রেস, ৭৬৬, রবিবার, চিলাহাটি, ঢাকা,
ঢাকা-নোয়াখালি
উপকুল এক্সপ্রেস, ৭১১, বুধবার, নোয়াখালি, ঢাকা,
উপকুল এক্সপ্রেস, ৭১২, মঙ্গলবার, ঢাকা, নোয়াখালি,

ঢাকা-লালমনিরহাট

লালমনি এক্সপ্রেস, ৭৫১, শুক্রবার, ঢাকা, লালমনিরহাট,
লালমনি এক্সপ্রেস, ৭৫২, শুক্রবার, লালমনিরহাট, ঢাকা,

 

ঢাকা-মোহনগঞ্জ

হাওর এক্সপ্রেস, ৭৭৭, বুধবার, ঢাকা, মোহনগঞ্জ,
হাওর এক্সপ্রেস, ৭৭৮,বৃহস্পতিবার, মোহনগঞ্জ, ঢাকা,

চট্রগ্রাম-চাঁদপুর

মেঘনা এক্সপ্রেস, ৭২৯, নাই, চট্রগ্রাম, চাঁদপুর,
মেঘনা এক্সপ্রেস,৭৩০, নাই, চাঁদপুর, চট্রগ্রাম,

খুলনা-চিলাহাটি

রুপসা এক্সপ্রেস, ৭২৭, বৃহস্পতিবার, খুলনা, চিলাহাটি,
রুপসা এক্সপ্রেস, ৭২৮, বৃহস্পতিবার, চিলাহাটি, খুলনা,
সীমান্ত এক্সপ্রেস, ৭৪৭, নাই, খুলনা, চিলাহাটি,
সীমান্ত এক্সপ্রেস, ৭৪৮, নাই, চিলাহাটি, খুলনা,

রাজশাহী-চিলাহাটি

বরেন্দ্র এক্সপ্রেস, ৭৩১, রবিবার, রাজশাহী, চিলাহাটি
বরেন্দ্র এক্সপ্রেস, ৭৩২, রবিবার, চিলাহাটি, রাজশাহী,
তিতুমীর এক্সপ্রেস, ৭৩৩, বুধবার, রাজশাহী, চিলাহাটি,
তিতুমীর এক্সপ্রেস, ৭৩৪, বুধবার, চিলাহাটি, রাজশাহী,

রাজশাহী-গোয়ালন্দ ঘাট

মধুমতি এক্সপ্রেস, ৭৫৫, বৃহস্পতিবার, গোয়ালন্দ, রাজশাহী,
মধুমতি এক্সপ্রেস, ৭৫৬, বৃহস্পতিবার, রাজশাহী, গোয়ালন্দ,

দিনাজপুর-সান্তাহার

দোলনচাপা এক্সপ্রেস, ৭৬৭, নাই, সান্তাহার, দিনাজপুর
দোলনচাপা এক্সপ্রেস, ৭৬৮, নাই, দিনাজপুর, সান্তাহার,

সান্তাহার-বুড়িমাড়ী

করতোয়া এক্সপ্রেস, ৭১৩, নাই, সান্তাহার, বুড়িমাড়ী,
করতোয়া এক্সপ্রেস, ৭১৪, নাই, বুড়িমাড়ী, সান্তাহার,

ঢাকা-কলকাতা

মৈত্রী এক্সপ্রেস, ৩১০৭/৩১১০, সোমবার/মঙ্গলবার/বৃহস্পতিবার, ঢাকা ক্যান্টঃ, কলকাতা,
মৈত্রী এক্সপ্রেস, ৩১০৮/৩১০৯, বুধবার/বৃহস্পতিবার/শুক্রবার, কলকাতা, ঢাকা ক্যান্টঃ,

সকল ট্রেনের সময়সূচিঃ

সব ট্রেনের যাত্রার সময়সুচি তো আর মুখস্থ রাখা সম্ভব হয় না অথবা হঠাত যাত্রায় যথেষ্ট প্রস্তুতি না থাকায় অনেক সময় আমরা ট্রেনের সঠিক সময়সূচি না জেনেই ষ্টেশনে রওয়ানা দিতে বাধ্য হই।
ফলে যথেষ্ট বিড়ম্বনা পোহাতে হয়।বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অনেক সময় ট্রেনের জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা ষ্টেশনে বসে ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করতে হয়।এ অবস্থায় যদি যাত্রাসঙ্গি মেয়ে বা বাচ্চা থাকলে বিড়ম্বনার যেন আর কোন শেষ নেই।তাই যথাযথ ভাবে ট্রেনের সময়সূচি জেনেই ষ্টেশনের উদ্দ্যেশ্যে রওয়ানা দেওয়া উচিত।আপনি চাইলে বাংলাদেশ রেলওয়ের সাইট থেকে সকল ট্রেনের সময়সূচি দেখে নিতে পারেন।এতে করে অনেক অযাচিত বিড়ম্বনা ও কষ্টের হাত থেকে রক্ষা পাবেন।

 

শেষকথাঃ-

উপকৃত হলে বা পোষ্টের কোন ব্যাপারে কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। এমন আরোও তথ্যবহুল ও প্রয়োজনীয় পোষ্ট পেতে ১২ মিশালির সাথে থাকুন।

 

আমরা জানতে পারলাম বাড়িতে বসে কিভাবে ট্রেনের অবস্থান জানা যায়। আশা করি আর কাউকে ট্রেনের আশায় ষ্টেশনে বসে থাকতে হবে না। Train location bd সার্ভিসটি আরোও কার্যকর করার জন্য পর্যায়ক্রমে সকল ট্রেনে জিপিএস ডিভাইস বসানোর কাজ চলছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *