seo কি

seo কি? সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশনের শুরুর কথা

এসইও সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন

seo কি?প্রশ্নটি অনেক ছোট হলেও উত্তরটা অনেক লম্বা,সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন বা seo (এসইও) একটি দীর্ঘ ও সম্বনিত প্রক্রিয়া।৩ টি ধাপে এসইও বিভক্ত।

seo কি

seo কি?

seo (এসইও) হলো একটি সম্বনিত পদ্ধতি,যার অর্থ দাড়ায় সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন, যার দ্বারা সার্চ ইঞ্জিন গুলোর অভ্যন্তরীন প্যারামিটারগুলো ব্যবহার করে ওয়েবসাইট বা এর কোন একটি পেজকে serp বা সার্চ রেজাল্ট পেজের কোন অবস্থানে দেখাবে তা নিশ্চিত করা যায়।

 

search engine optimazation

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন কি এটা জানার আগে সার্চ ইঞ্জিন এবং সার্চ রেজাল্ট সম্পর্কে জেনে নেওয়া দরকার।

 

সার্চ ইঞ্জিনঃ-

ওয়েব থেকে কোন তথ্য খুজে বের করার মাধ্যম হলো সার্চ ইঞ্জিন।জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন সমুহ হলো গুগল, ইয়াহু, বিং, আস্ক,ডাক ডাক গো ইত্যাদি।
ওয়েবে ছড়িয়ে থাকা কোটি কোটি ওয়েবসাইট গুলোর তথ্য শ্রেনীবদ্ধ ভাবে সার্চ ইঞ্জিন গুলোর কাছে ইনডেক্স করা থাকে।
মানুষ যখন কোন নির্দিষ্ট বিষয়ে ওয়েবে সার্চ করে,সার্চ ইঞ্জিন তখন অই বিষয়ের উপর তার তালিকায় থাকা ওয়েবসাইট গুলোর মধ্য থেকে বাছাই করে সেরা ফলাফল গুলো প্রদর্শন করে থাকে।

 

সার্চ রেজাল্টঃ-

আপনি গুগলে “১২ মিশালি” শব্দটি লিখে সার্চ দিলেন,তার প্রতিক্রিয়ার গুগল আপনাকে “১২ মিশালি” সম্পর্কিত অনেক গুলো ওয়েবসাইটের তালিকা প্রদর্শন করলো,এটাই হলো সার্চ রেজাল্ট।আর যে শব্দটি দিয়ে সার্চ করলেন সেটা হলো কিওয়ার্ড।স্বভাবই আপনি গুগল প্রদর্শিত সার্চ রেজাল্ট পেজের প্রথম দিকে থাকা তালিকা গুলো থেকে আপনার উত্তর খোজার চেষ্টা করবেন।

 

এই তালিকার প্রথম দিকে নিজের ওয়েবসাইটকে রাখতে চাইলে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশনের কোন বিকল্প নেই।
মুলত সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন হয় অন পেজ আর অফ পেজ,কিন্তু আরেকটি বিষয় থাকে তাহলো টেকনিক্যাল এসইও নামে পরিচিত।আজকের পোষ্টের মূল বিষয়বস্তু হলো অন পেজ এসইও।

 

seo কত প্রকারঃ-

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন কি সেটা তো জানলাম।এবার আসুন দেখে নেওয়া যাক seo কত প্রকার এবং কি কি?
প্রধানত সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন কে দুই প্রকার বলা হয়, অন পেজ এসইও ও অফ পেজ এসইও।

 

seo কি

কিন্তু একটি সাইটকে এসইও উপযোগী করে তুলতে টেকনিক্যাল এসইও এর গুরুত্ব অনেক বেশী।তাই আমরা এসইও কে তিন ভাগে ভাগ করবো।
যথাঃ-
  • অন পেজ এসইও
  • অফ পেজ এসইও
  • টেকনিক্যাল এসইও

অন পেজ এসইওঃ-

ওয়েবসাইট বা ওয়েবপেজ কে সার্চ ইঞ্জিনের উপযোগী করে তোলার জন্য যে প্রক্রিয়া ব্যবহার করা হয় সেটিই হলো অন পেজ এসইও
আদতে অন পেজ এসইও হলো ওয়েব সাইটের ভিতরের কাজ। সার্চ ইঞ্জিন উপযোগী করে গড়ে তুলতে যে পদ্ধতিগুলো ব্যবহার করা হয় সেগুলোই হলো অন পেজ এসইও।

seo কি

 

অন পেজ seo এর গুরুত্বঃ-

অনপেজ পেজ হলো সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশনের মধ্যমনি। সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাঙ্কিং এর ক্ষেত্রে অন্যতম বড় ফ্যাক্টর। তাই এর গুরুত্ব অপরিসীম।

অন পেজ এসইও এর কাজের ধাপঃ-

এই প্রক্রিয়ার কাজ গুলো সব ওয়েবসাইটের ভিতরেই করা হয়ে থাকে।অনপেজ এসইও তে সর্বাধিক বিবেচ্য বিষয়গুলো হলো নিম্নরুপঃ
১। কীওয়ার্ড
২। ইউ আর এল
৩। মেটা ডিসক্রিকশন
৪। ইন্টারনাল/এক্সটারনাল লিংক
৫। অল্টার ট্যাগ
৬। আর্টিকেল/কনটেন্ট
৭। এইচ ট্যাগের ব্যবহার
৮। রিডেবিলিটি
মোটামুটি এই কয়েকটি বিষয় কে সামনে রেখে একটি পেজ অপ্টিমাইজেশনের কাজ করা হয়ে থাকে।

 

অফ পেজ এসইওঃ-

যে প্রক্রিয়ায় নিজের ওয়েব সাইটের বাহিরে কাজ করে সাইটের ট্রাফিক বাড়ানো যায় তাকেই অফ পেজ এসইও বলে। এক কথায় অফপেজ এসইও হলো সাইটের প্রচারনা বা মার্কেটিং কৌশল।
কিন্তু নিশ্চিতভাবেই এটি র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর হিসাবে কাজ করে থাকে।যার পরিপূর্ণ ব্যবহার করে সাইটের ভালো র‍্যাংক পাওয়া সম্ভব।

 

seo কি

অফ পেজ seo এর গুরুত্বঃ-

তাই সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশনের ক্ষেত্রে অফপেজ এসইও খুবই গুরত্বপূরন এবং দীর্ঘ মেয়াদী প্রক্রিয়া। নিজের সাইটের কন্ট্রোল প্যানেল এবং সার্চ ইঞ্জিনের বাহিরে থেকে অফপেজ এসইও কাজ করা হয়।
কোন জনপ্রিয় সাইটে নিজের সাইটের লিংক শেয়ার করা,সোশাল মিডিয়ায় বুক মারকিং,ডিরেক্টরী সাবমিশন,ইমেইল মার্কেটিং ইত্যাদি অফ পেজ এসইও এর আওতায় পড়ে।
ব্যাকলিংক তৈরি করা এবং রেফার সংগ্রহ করা এর মধ্যে অন্যতম কাজ।যার রেফার যত শক্তিশালী হবে তার র‍্যাংকিং তত ভালো হবে।
অফপেজ এসইও কোন নির্দিষ্ট পেজ নিয়ে নয় বরং পুরো ব্লগ বা ওয়েবসাইটে এর প্রভাব পড়ে।তাই সুনির্দিষ্ট পন্থায় অফ পেজ এসইও করতে পারলে অবশ্যই কাঙ্ক্ষিত ফলাফল পাওয়া যাবে।

কিভাবে অফ পেজ এসইও করতে হয়ঃ-

অফপেজ এসইও এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিম্নে তুলে ধরা হলোঃ
১। ব্যাকলিংক তৈরি
২। Q/A ফোরাম পোষ্টিং
৩। সোশাল মিডিয়া এনগেজমেন্ট
৪। ডিরেক্টরী সাবমিশন
৫। ইমেইল মার্কেটিং

 

টেকনিক্যাল এসইওঃ-

টেকনিক্যাল seo হলো সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশনের গোড়া।যেহেতু পুরা এসইও প্রক্রিয়া চলে একটি ওয়েবসাইটকে ঘিরে সেহেতু এর গুরুত্ব অবশ্যই অনেক বেশী।
একটি সাইটকে র‍্যাঙ্ক করার আগে সার্চ ইঞ্জিন প্রথমে দেখে যে সাইটটির লোড টাইম কত। অর্থাৎ সাইট টি ঠিক কত সময়ের মধ্যে সম্পূর্ণ লোড হচ্ছে।
যদি লোড টাইম অনেক বেশী হয় তাহলে সার্চ ইঞ্জিন উক্ত সাইটকে নেগেটিভ ভাবে দেখে। যার প্রভাব সাইটের র‍্যাঙ্কিং এর উপরে পড়ে থাকে।
সুতরাং এসইও এর ক্ষেত্রে টেকনিক্যাল এসইও এর গুরুত্ব কোন অংশেই কম নয়।বরং টেকনিক্যাল এসইও এর দিকে নজড় দিলে শুরু থেকেই একটি সাইট এসইও ফ্রেন্ডলী হিসাবে গড়ে তোলা সম্ভব।
এছাড়াও টেকনিক্যাল এসইও তে আরোও কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর রয়েছে ,যা র‍্যাঙ্কিং এ প্রভাব বিস্তার করে ।আসুন জেনে নেওয়া যাক।

 

Technical seo

টেকনিক্যাল এসইও এর গুরুত্বঃ-

একটি ওয়েবসাইটকে কেন্দ্র করেই এসইও এর সকল কার্যক্রম করা হয়ে থাকে।সুতরাং এসইও শুরু করার জন্য একটি ওয়েবসাইট অপরিহার্য বিষয়।
হাতে একটা ওয়েবসাইট থাকলে তারপরেই তো অনপেজ এসইও বা অফপেজ এসইও এর কাজ শুরু করা সম্ভব হবে।
ওয়ার্ড প্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরির সম্পর্কে জেনে নিন।
তাছাড়াও এসইও এর ক্ষেত্রে ওয়েবসাইটের টেকনিক্যাল কিছু বিষয় সরাসরি প্রভাব বিস্তার করে থাকে।
সাইট স্ট্রাকচার,ডিজাইন,পেজ লোড স্প্রিড টাইম,মোবাইল ইউজেবিলিটিএসবকিছুই এসইও এর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।
কারন কেউ চাইলেই যেকোন একটা ওয়েবসাইটে এসইও কার্যকর করতে পারবে না তারজন্য পুরা সাইট টা এসইও ফ্রেন্ডলী হতে হবে্ড
প্রথমে সাইটের প্রতিটি বিষয় এসইও উপযোগী করে তৈরি করতে হবে এবং পর্যায়ক্রমে এসইও এর পরবর্তী ধাপ গুলো এপ্লাই করতে হবে।

টেকনিক্যাল seo এর ফ্যাক্টরসমূহঃ-

এবার দেখে নেওয়া যাক টেকনিক্যাল এসইও এর মূল বিবেচ্য বিষয়সমূহঃ
১। সাইট স্ট্রাকচার ও ডিজাইন
২। পেজ লোড স্প্রিড টাইম
৩। মোবাইল ইউজেবিলিটি
৪। সাইট্ম্যাপ ও রোবট টেক্সট
৫। এস এস এল সার্টিফিকেট
৬। ব্রোকেন লিংক ফিক্স
৭। Crawl এররমুক্ত রাখা
৮। ৪০৪ (পেজ নট ফান্ড) এরর ফিক্স
মোটামুটি এই কয়েকটি বিষয় মাথায় রেখে ওয়েবসাইট ডেভলোপমেণ্ট এর কাজ করলে আশা করা যায় সাইটটি এসইও ফ্রেন্ডলী বলে গন্য হবে।
seo এর সম্পর্কে আরোও বিশদভাবে জানতে গুগলের seo starter গাইডটি পড়ে দেখুন।

 

উপসংহারঃ-

seo কি তা আমরা খুব সাধারন ভাষায় বুঝার চেষ্টা করেছি। ছোট বড় অনেক গুলো বিষয়ের সম্বনয়ে পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়ে থাকে।যার মধ্যে কোনটির গুরুত্ব ছোট করে দেখা যাবে না।তবে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন এর কাজ করার প্রক্রিয়াটি বুঝতে পারলে seo এর রহস্য উম্মোচন করা যাবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *