ফেসবুক পেজ তৈরি

ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হয় কিভাবে

অনলাইন ইনকাম ফেসবুক সোশাল মার্কেটিং
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জনপ্রিয় হতে চান? অথবা কোটি কোটি মানুষের মাঝে আপনার পন্য বা সেবা প্রচার করতে চান?তাহলে আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকা আবশ্যক।যদি আপনি একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে চান অথচ জানেন না সেটা কিভাবে করতে হয়।তাহলে আপনি সঠিক জায়গাতেই এসেছেন।আজকের পোষ্টে ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হয় কিভাবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে।

 

হালের সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলো ফেসবুক।বলতে গেলে যার কোন প্রতিদ্বন্দী নেই।বলা হয়ে থাকে বিশ্বজুড়ে ২৫০ কোটির বেশী মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে থাকে। ব্যবসায়িক পেজ আছে ১৫ কোটির উপরে।এই বিশাল সংখ্যাক মানুষের উপস্থিতিকে কাজে লাগাতে গড়ে উঠেছে ফেসবুকের এক বিশাল ব্যবসায়িক প্লাটফর্ম।

 

ফেসবুক প্রোফাইলের অনেক সীমাবদ্ধতা থাকে।ব্যক্তিগত প্রোফাইলে ৫ হাজারের বেশী ফ্রেন্ড এড করা যায় না।পক্ষান্তরে ফেসবুক পেজ এ লাইকের কোন সীমাবদ্ধতা নেই।ফ্রেন্ড রিকুয়েষ্ট পাঠানো বা একসেপ্ট করার কোন ঝামেলাই নেই।আপনার যতখুশি ফ্যান ফলোয়ার থাকতে পারে।আপনি ইচ্ছা মতো কনটেন্ট বা প্রোডাক্ট শেয়ার করতে পারেন।
একথাও আমরা সবাই জানি যে প্রোফাইল মনিটাইজ করার কোন সুযোগ ফেসবুক রাখেনি।কিন্তু আপনি চাইলে ফেসবুক পেজ মনিটাইজ করার মাধ্যমে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

 

ফেসবুক পেজ তৈরি করবেন কিভাবে?

আজকের পোষ্টে ব্রাউজার এবং মোবাইল এপস ব্যবহার করে কিভাবে ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হয় সেটা আলাদাভাবেই দেখানো হবে।
প্রোফাইলের মতো ফেসবুক পেজের জন্য আলাদা কভার এবং প্রোফাইল ফটোর প্রয়োজন হবে।সেজন্য ভালো হয় যদি পেজে ব্যবহারের জন্য কভার এবং প্রোফাইল ফটো আগেই তৈরি করে রাখলেন।অবশ্য আপলোডের কাজটি পরেও করা যেতে পারে।আপনি যেকোন সময় প্রোফাইল এবং কভার ফটো পরিবর্তন এবং পরিবর্ধনের কাজটি করতে পারবেন।
তবে কভার এবং প্রোফাইল ফটোর জন্য কিছু নিয়ম রয়েছে।কভার ফটো আপলোডের জন্য ফেসবুক ৭২০ x ৩১৫ পিক্সেল সুপারিশ করে।কমপক্ষে ৪০০ x ১৫০ পিক্সেল হওয়া উচিত।
তো আসুন আর কথা না বাড়িয়ে এবার কাজের ধাপ গুলো অনুসরন করি।
জিমেইল আইডি তৈরি: ইমেইল একাউন্ট ওপেন করুন নিমিষেই

 

ফেসবুক পেজ তৈরি (নতুন ভার্সন ব্রাউজার) :-

আপনার পছন্দের ব্রাউজারটি ওপেন করুন।এড্রেসবারে https://web.facebook.com লিখে এন্টার দিন।
বাম দিকে মেনুর তালিকা থেকে Page বাটনটিতে ক্লিক করুন।Create New Page বাটন দেখতে পাবেন।এখানে ক্লিক করুন।
অথবা নেভিগেশন বারের ডানের দিকের + চিহ্নটিতে ক্লিক করুন।তারপর মেনুর তালিকা থেকে Page সিলেক্ট করুন।
অথবা উপরের ২ টী স্টেপ এ না গিয়ে আপনি সরাসরি এড্রেসবারে গিয়ে https://web.facebook.com/page/create লিখে এন্টার দিয়ে Create Page উইজার্ডে যেতে পারেন।
এবার পেজের নাম দিন,ক্যাটাগরি সিলেক্ট করুন এবং পেজের সংক্ষিপ্ত বিবরন লিখে নীচের Create New Page বাটনে ক্লিক করুন।
Set Up Your Page এ আপনার পেজের জন্য আগে থেকে তৈরি করে রাখা প্রোফাইল ফটো টি আপলোড করুন।
একইভাবে কভার ফটো আপলোড করুন।নীচের দিকের Save বাটনে ক্লিক করুন।
আপনার কাংক্ষিত পেজ তৈরির কাজ শেষ। Edit Page Info তে গিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো দিন।এখানে আপনি আপনার লাইভ পেজটি দেখতে দেখতে সমস্ত ইডিট গুলো করতে পারবেন।যাতে পরিবর্তন গুলো স্বচোক্ষে দেখতে পারেন।
Invite Friends to Like Your Page এ গিয়ে আপনার ফেসবুক প্রোফাইলে থাকা বন্ধুদের আপনার পেজটি লাইক করার জন্য আমন্ত্রন জানান।
ইতিমধ্যেই আপনার সদ্য তৈরি করা পেজটি পোষ্ট পাবলিশ করার জন্য একেবারে তৈরি। Create Post বাটনটিতে ক্লিক করে আপনার ইচ্ছামতো ছবি,ভিডিও,প্রোডাক্ট বা যেকোন কন্টেন্ট পোষ্ট করতে পারবেন।
লিংকডইন কোম্পানী পেজ তৈরি করবেন কিভাবে

 

ফেসবুক পেজ তৈরি (স্মার্টফোন) :-

আপনার এন্ড্রোয়েড ফোনে ফেসবুক এপসটি খুলুন। উপরথেকে ডানে ৩ ডট বিশিষ্ট মেনু দেখা যাবে।মেনুতে ক্লিক করে Your Pages সিলেক্ট করতে হবে।এবার + Create বাটনটি ক্লিক করতে হবে।
Create Your Page উইজার্ডে Get Started এ ক্লিক করুন।এবার আপনার পেজের জন্য একটা নাম দিন। এমন নাম যার সাথে আপনার পেজের বিষয়বস্তুর মিল থাকে। Next বাটনে ক্লিক করুন।
এবার পেজের ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন। আপনার পেজের জন্য যথা উপযুক্ত ক্যাটাগরি বাছাই করুন।
এখানে ফেসবুকের কিছু সাজেশন থাকবে অথবা আপনার মতো করেও ক্যাটাগরি বাছাই করতে পারেন।Next বাটনে ক্লিক করুন।
এবার আপনার পেজের সাথে সংযুক্ত ওয়েবসাইটের নাম দিতে হবে। ওয়েবসাইট না থাকলে I Dont Have A Website চেকবক্স টিক দিন।Next বাটনে ক্লিক করুন।
এবার প্রথমে আপনার পেজের জন্য আগে থেকে তৈরি করে রাখা প্রোফাইল ফটো টি আপলোড করুন।
একইভাবে কভার ফটো আপলোড করুন।
অবশ্য আপনি চাইলে যেকোন মুহুর্তে ফটো গুলো পরিবর্তন ও পরিবর্ধন করতে পারবেন।
প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হলে Done বাটনে ক্লিক করলেই আপনার পেজ তৈরির প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হলো।
Edit Page Info তে গিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো দিন।
এবার আপনি পর্যায়ক্রমে পেজের ইনফরমেশন গুলো আপডেট করতে থাকলেন।
আপনার পেজ এ লাইক দেওয়ার জন্য ফেসবুক প্রোফাইলের বন্ধু তালিকা থেকে বন্ধুদের ইনভাইট করতে পারেন।
সর্বশেষ আপনার পেজের ফ্যানদের জন্য পোষ্ট পাবলিশ শুরু করতে পারেন।
মূলত ফেসবুক পেজ তৈরি করাটা খুব সহজ। কিন্তু সার্চ ইঞ্জিনের উপযোগী করে তৈরি করাটা আসল কথা।

 

পেজ কিভাবে সাজাবেন?

ফেসবুক পেজ তৈরি করার সময় বা তৈরি করার পর পেজের নাম, বিবরন,পেজ লিংক,ক্যাটাগরি,কভার ফটো এবং প্রোফাইল ফটোর ব্যবহার পেশাদারিত্বের সাথে করতে হয়।সুতরাং পেজ তৈরি করার পর এই বিষয় গুলো খেয়াল রাখতে হবে।

ফেসবুক পেজ এর নাম, পেজলিংক ও বিবরনঃ-

পেজের নাম অনুসারে ফেসবুক স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেটি তার পেজ লিংক বানিয়ে নেয়। মনে রাখতে হবে যে ,মানুষের করা সার্চ রেজাল্টে আপনার পেজের নাম আসার জন্য পেজ লিংকটা খুবই গুরুত্বপুর্ন।
২৫৫ অক্ষরের মধ্যে আপনার পেজ বা ব্র্যান্ডের সংক্ষিপ্ত বিবরন লিখুন,যা পড়ে যে কেউ আপনার ব্র্যান্ড সম্পর্কে খুব ভালো ধারনা পায়।
পাশাপাশি খুবই সর্তকতার সাথে আপনার পেজের সাথে সামসঞ্জ্য পুর্ন একটি ক্যাটাগরি বাছাই করতে হবে।
এছাড়াও পেজের জন্য আরোও কিছু তথ্য দিতে হয়, যেমন লোকেশন,খোলার সময় ইত্যাদি।এই তথ্যগুলোও সঠিক ভাবে প্রদান করা জরুরী।

ফেসবুক পেজ এর কভার/প্রোফাইল ফটোঃ-

আপনার সদ্য নির্মিত ফেসবুক পেজের জন্য রুচিসম্মত একপ্টি কভার ফটো খুবই জরুরী। যা দেখলেই পেশাদারের ইঙ্গিত পাওয়া যাবে।
পেজের কভার ফটোর সাইজ হবে ৮২০px X ৪৬২px । তবে পেজের কভারে ভিডিও রাখাটাও খুবই কার্যকরী।
পেজের প্রোফাইল পিকচার রাখতে ১৭০px X ১৭০px এর মধ্যে। এখানে আপনার ব্র্যান্ডের লোগো ব্যবহার করতে পারেন।

 

শেষকথাঃ-

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে যে জনস্রোত তৈরি হয়েছে তাকে সঠিক ভাবে কাজে লাগিয়ে যে কেউ তার ব্যবস্য বা পন্যের প্রচার অনায়াসেই চালাতে পারে।
একটি ফেসবুক পেজ আপনার প্রচারের অন্যতম মাধ্যম হতে পারে। যার দ্বারা আপনি আপনার পন্যকে গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *