facebook monetize

facebook monetize করে টাকা আয় করার উপায়

অনলাইন ইনকাম ফেসবুক
নামে সোশ্যাল মিডিয়া হলেও ফেসবুক থেকে সরাসরি টাকা আয় করার সুযোগ রয়েছে।সোশ্যাল মার্কেটিং ও এফ কমার্সের পাশাপাশি facebook monetize এর আওতায় এনে দীর্ঘ মেয়াদে টাকা আয় করা যায়।

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক সম্পর্কে নতুন করে বলার কিছু নেই। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ফিচার যুক্ত হতেই আছে।আর সময়ের ব্যবধানে সেগুলো আর বেশী সুবিধা যুক্ত হয়েই চলেছে।

facebook monetize

প্রতিনিয়ত বদলে যাচ্ছে ফেসবুকের অর্থনৈতিক কাঠামো। ইদানিং facebook এমনকিছু সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে যাতে করে সময় কাটানোর পাশাপাশি মানুষ ফেসবুক থেকে আয় করতে পারে।
কি কি উপায়ে ফেসবুক থেকে আয় করা যায় তা নিয়ে নিচের পোষ্টটি পড়ে দেখতে পারেন। তাহলে এ সম্পর্কে পরিস্কার একটা ধারনা পাবেন।
তবে আজকে আমরা facebook থেকে আয় করার সবগুলো উপায় নিয়ে আলোচনা করবো না বরং facebook থেকে আয় করার একটি সহজ অথচ কার্যকরী উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। আর সেই উপায়টির নাম হলো facebook monetize ।
এজন্য সর্ব প্রথম আপনার একটি ফেসবুক পেজ দরকার হবে।সঠিকভাবে ফেসবুক পেজ সেটিং সম্পন্ন করার সম্পুর্ন গাইড লাইন দেখুন।

 

facebook monetization কি?

প্রথমেই বলেছিলাম,ফেসবুক এখন শুধু আর লাইক,কমেন্ট,শেয়ার এর মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই।এখন ইউটিউবের মতো ফেসবুকেও ভিডিও আপলোড করা যায়।ইউটিউব চ্যানেল যেমন মনিটাইজেশনের আওতায় আনা যায় তেমনি facebook monetize করার সুবিধা পাওয়া যায়।
সাধারন ইউজাররা যাতে সরাসরি ফেসবুক থেকে আয় করতে পারে সে জন্য ২০২০ সালের facebook এর আলোড়ন জাগানো ফিচার এডস ব্রেক যুক্ত করা হয়।
আর সেই ভিডিও মনিটাইজ করে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা যায়।ফেসবুকের ভাষায় যাকে বলা হচ্ছে এডস ব্রেক।আরেক অর্থে বলা হচ্ছে In stream ads।

facebook monetize

 

আপনার আপলোড করা ভিডিও এর মাঝে ফেসবুক এড প্রদর্শন করাবে তার বিনিময়ে ফেসবুক আপনাকে বিজ্ঞাপন থেকে প্রাপ্ত লাভের টাকার অংশ দিবে।এটাই হলো facebook monetize এর মূলনীতি।
ভিডিও তে ভিজিটর যত বেশী হবে আপনার ইনকামও তত বাড়বে।কিছুটা ইউটিউবের মতোই ব্যাপার।এড ইম্প্রেশন আর ক্লিকের উপর আপনার মোট আয় নির্ভর করবে।
এডস ব্রেক শুধুমাত্র ফেসবুক পেজের জন্য।ব্যক্তিগত প্রোফাইলে এড ব্রেক সুবিধা পাওয়া যায় না।এড ব্রেকের সুবিধা ভোগ করার জন্য ফেসবুক নির্ধারিত কিছু নিয়ম নীতি আছে।
যেগুলো পুরন করার মাধ্যমে আপনি facebook monetize এর জন্য উপযুক্ত বিবেচিত  হবেন।

 

facebook monetize প্রক্রিয়াঃ

নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তা সংক্রান্ত বিধিনিষেদের কারনে facebook monetize প্রক্রিয়াটি একটু কঠিন এবং দীর্ঘ মেয়াদী একটি প্রক্রিয়া।ফেসবুকে একটি পেজ তৈরি করা,সঠিকভাবে সেই ফেসবুক পেজ সেটিং সম্পন্ন করা এরপর ভিডিও বা কনটেন্ট পাবলিশ করা পুরা বিষয়টা অনেক সময় সাপেক্ষ ব্যাপার।এটুকুতেই শেষ নয় facebook monetize সম্পূর্ন করার জন্য ফেসবুকের দেওয়া কিছু শর্ত আছে ।আসুন এবার আমরা facebook monetize এর শর্তাবলী গুলো ভালভাবে দেখে নিই।

facebook monetize এর শর্তাবলীঃ-

  • আপনার পেজে নূন্যতম ১০ হাজার লাইক থাকতে হবে।
  • প্রতিটি ভিডিও নূন্যতম ৩ মিনিটের হতে হবে।
  • সর্বশেষ ৬০ দিনে সব ভিডিও মিলিয়ে ৩০ হাজার ভিউ থাকতে হবে।যার প্রত্যেকটি ভিউ কমপক্ষে ১ মিনিট স্থায়ী হতে হবে।
  • ১০ মিনিটের অধিক মাপের ভিডিও গুলো বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য আদর্শ।কোন এনিমেশান ভিডিও গ্রহনযোগ্য হবে ভিডিও অবশ্যই চলমান এবং ইউনিক হতে হবে।প্রাসংগিক কনটেন্ট সমেত যত বড় এবং যতবেশী ভিডিও থাকবে ততবেশী বিজ্ঞাপন প্রদর্শন হবে।আর ইনকামও তত বেশীই হবে।
  • যদি উপরোক্ত শর্ত গুলো পুরন করার উপযুক্ত কোন ফেসবুক পেজ আপনার থাকে।তাহলেই আপনি এডস ব্রেক এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

facebook monetize এর এলিজিবিলিটি চেকঃ-

আপনার পেজ এডস ব্রেক এর জন্য উপযুক্ত কি না তা জানার জন্য আপনার ফেসবুক প্রোফাইল থেকে এই লিংকে গিয়ে চেক করতে পারবেন।পাশাপাশি ওখান থেকে আপনি জানতে পারবেন এডস ব্রেক এর উপযুক্ত হতে আপনার কোন কোন জায়গায় ঘাটতি রয়েছে।

facebook monetize

 

 

পেজটি যোগ্য হওয়ার পরেই বিবেচনাই আসবে কনটেন্টের বিষয়বস্তু।আপনার পেজের ভিডিও কন্টেন্ট গুলো পর্যালোচনা করার জন্য এই লিংকে যেতে হবে।
এখানে আপনি আপনার পেজ এবং কনটেন্টের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।এখানে আপনি ফেসবুক ফলোয়ার,ভিডিও ভিউয়ার ও মনিটাইজেশান এলিজিবিলিটিসহ কমপ্লায়েন্সের খুটিনাটি জানতে পারবেন।যার থেকে আপনি পেজ এবং কনটেন্টের ঘাটতি গুলো পুরন করতে পারেন।

 

facebook monetize পদ্ধতিটি কিভাবে কাজ করে?

একবার facebook monetize প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে আপনার আগের সব ভিডিও এবং নতুন করে আপলোড করা ভিডিও গুলোতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের সুযোগ পাবেন।বিজ্ঞাপন দেখানোর দুটি অপশান থাকে।
একটি হলো ফেসবুক স্বয়ংক্রিয় ভাবে তাদের ইচ্ছামতো জায়গায় বিজ্ঞাপন দেখাতে পারে।অথবা ভিডিওর ৬০ থেকে ১২০ সেকেন্ডের মধ্যে একটি জায়গা আপনি দেখিয়ে দিলেন।

 

facebook monetize করে কত টাকা আয় করা যাবে?

বিজ্ঞাপন প্রচার থেকে যত টাকা ফেসবুক ইনকাম করবে তার ৫৫ শতাংশ আপনাকে দিবে।সংখ্যাটা কিন্তু নেহাতই কম নয়।অর্গানিক সার্চ থেকে কিছু সংখ্যাক ট্রাফিক আনতে পারলে মাস শেষে মোটামুটি কিছু ডলারও ইনকাম করা সম্ভব।তবে এখানে সবচেয়ে বেশী গুরুত্বপুর্ন বিষয় হলো সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন
কারন গুগল থেকে অর্গানিক ট্রাফিক আনতে হলে সঠিকভাবে এসইও এর কোন বিকল্প নেই।আর এসইও এর কাজটা সঠিকভাবে করতে পারলে আর অনলাইনে মানুষ প্রতিনিয়ত খোজে এমন কিছু বিষয়ভিত্তিক ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে পারলে দু চার মাসের মধ্যে ফেসবুক থেকে ভালো অংকের টাকা ইনকাম করা সম্ভব হবে।

 

পরিশেষেঃ-

যার মধ্যে সৃষ্টিশীলতা আছে,নতুন কিছু ভাবার সময় রাখে আর পরিশ্রম করার মানসিকতা রাখে এমন একজন মানুষের যদি facebook monetize পেজ থাকে তাহলে আমার মনে হয় এটি তার জন্য টাকা ইনকামের সবচেয়ে বড় মাধ্যম হয়ে উঠতে পারে।সাম্প্রতিক সময়ে ইউটিউবে বা ফেসবুক সেলিব্রেটিদের কথা আমরা জানি যারা শুধুমাত্র ভিডিও দেখিয়ে লক্ষ লক্ষ ডলার ইনকাম করেছে।এরমধ্যে আবার কিছু ছোট শিশুও আছে।যাদের ইনকামের ফিরিস্থি শুনলে আপনার চোখ কপলাএ উঠে যাবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *