ইসলামিক নাম

ইসলামিক নাম । ছেলে এবং মেয়েদের অর্থসহ নামের তালিকা

ইসলাম ধর্ম টিপস এবং ট্রিকস
শিশুর জন্মের পর তার জন্য একটি সুন্দর ইসলামিক নাম রাখা প্রত্যেক মুসলিম পিতা-মাতার কর্তব্য।। আজকের পোষ্টে ছেলে এবং মেয়েদের বাছাইকৃত কিছু নাম অর্থ ও ইংরেজি বানান সহ দেওয়া হলো।
যদিও নামে নয় মানুষের গুনাবলী প্রকাশ পায় তার কর্মে তথাপি একটি সুন্দর ইসলামিক নাম অনেক ভালো কিছুর ইঙ্গিত বহন করে।আরবীতে নাম কে বলা হয় ইসম।যার অর্থ হলো চিহ্ন বা পরিচিতি।

ইসলামিক নাম

আপনার নবজাতক ছেলে বা মেয়ে শিশুর সুন্দর ও ভালো অর্থপূর্ণ ইসলামিক নাম রাখুন। শিশুদের নাম নির্বাচনের পূর্বে নামের অর্থ জেনে নেওয়া উচিৎ। অনেক বাবা মা সন্তানের নাম নির্বাচনে ভুল করে বসেন। শিশুর ইসলামিক নাম নির্বাচন করতে গিয়ে কতসব হাবিজাবি, অহেতুক নাম বাছাই করে ফেলেন।

 

ইসলামিক নাম শিশুর জন্য বেহেশত দরজাও খুলে দিতে পারেন।  হাদিস , “এক ব্যক্তি নামাজ পড়তনা, গুনাহগার ছিলো, কিন্তু তার নামটা কোন এক নবীর নামে ছিল। প্রতিদিন যখন লোকজন তাকে ওই নামে ডাকত, তার নামে সওয়ার যুক্ত হত। এইভাবে শুধুমাত্র নামের জন্য উনি বেহেস্তে যান। তাই শিশুদের সুন্দর ইসলামিক নাম যেমন সামাজিক দিক থেকে গুরুত্বপুর্ণ তেমনি ধর্মের দিক থেকেও।

 

অনেক অভিভাবক নাম নির্বাচন করার সময় নামের বৈশিষ্ট্য বা জেন্ডার তফাৎ করতে পারেন না। শিশুদের নাম নির্বাচনের পূর্বে নামের অর্থ ও জেন্ডার বৈশিষ্ট্য জেনে নিতে হবে। কারণ, একটি নাম শুধু নাম নয় আপনার সন্তানের পরিচয় বহন করে। তাই, আপনার নবজাতক মেয়ে শিশু জন্য সুন্দর ইসলামিক নাম সহজে খুজে বের করতে লেখাটি সম্পূর্ন পড়ুন।

ইসলামিক নাম

 

মানুষ দুনিয়াতে এসে একটা নাম বা পরিচয় নিয়ে বেড়ে উঠে,একসময় সে মারা যায় কিন্তু তার নামটা রয়ে যায়।যদি সে ভাল কিছু থাকে সেটা বা মন্দ কিছু করে থাকলে সেটাও তার নামের সাথেই জড়িয়ে থাকে।

 

ইসলামিক নামের গুরুত্বঃ-

ইসলাম ধর্মে বাচ্চাদের নাম রাখার ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। যেখানে স্বয়ং মহান আল্লাহ তায়ালার ৯৯ টি গুনবাচক রয়েছে।যার প্রতিটি নামের অর্থ রয়েছে।
বাচ্চা জন্মদানের পরে পিতামাতার উপড় সদ্যভুমিষ্ট সন্তানের একটি ইসলামিক নাম রাখার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।এটি প্রতিটি পিতামাতার দায়িত্ব।
ইসলাম ব্যক্তির নামকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়েছে। যথার্থ নামকরণের মধ্য দিয়ে ব্যক্তির পরিচয় তুলে ধরার ব্যাপারে ইসলামের দিক নির্দেশনা সুস্পষ্ট।

ইসলামিক নাম

মহান আল্লাহ তাঁর নিজের পরিচয় দেয়ার জন্য নিজেকে নিজেই নামকরণ করেছেন। তিনি তাঁর অসংখ্য নাম রেখেছেন। আমরা উম্মতে মুহাম্মাদীর নিকট তাঁর নিরানব্বইটি নাম প্রকাশ করা হয়েছে। রাসূল স. তাঁর একটি দু‘আয় এভাবে উল্লেখ করেছেনে যে, ‘হে আল্লাহ… আমি তোমার সকল নামের উসিলায় তোমার কাছে প্রার্থনা করছি, যে নামে তুমি তোমাকে নামকরণ করেছ…’।
ইসলামে সন্তানে নামকরণ পিতামাতার আবশ্যকীয় কর্তব্য হিসাবে গণ্য। সকল মাযহাবে এটিকে পিতামাতার উপর সন্তানের অধিকার হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। ইমাম ইবনু ‘আরাফা আল-মালিকী [৭১৬-৮০৩ হি.] রহ. উল্লেখ করেছেন, মূলনীতির দাবি হচ্ছে নামকরণ করা ওয়াজিব। এক্ষেত্রে মাতার তুলনায় পিতা অগ্রগণ্য। নামকরণে পিতা-মাতার মধ্যে মতভেদ দেখা দিলে পিতা অগ্রাধিকার পাবেন। আল্লাহ তাআ‘লা বলেন, তোমরা তাদেরকে তাদের পিতৃপরিচয়ে ডাক। এটাই আল্লাহর কাছে ন্যায়সঙ্গত। এছাড়া সুন্দর নামে ব্যক্তিকে ডাকা ইসলামে মুস্তাহাব। যে নাম ব্যক্তির পছন্দ এবং প্রিয় সে নামেই ডাকা উচিত। খারাপ বা নিকৃষ্ট নামে কাউকে নামাঙ্কিত করা বা কাউকে ডাকা ইসলামে নিষিদ্ধ। এটাকে ইসলামে কবীরা গুনাহের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে । আল্লাহ্ বলেন, তোমার একে অপরকে মন্দ নামে ডেকো না, কেউ ঈমান আনলে তাদের মন্দ নামে ডাকা গুনাহ, যারা এরূপ কাজ থেকে তাওবা করে না তারা জালিম।

 

আর একটি সুন্দর অর্থবহ ইসলামিক নাম প্রতিটি সদ্যজাত শিশুর জন্মগত অধিকার।তাই সন্তানের নাম রাখার ক্ষেত্রে প্রত্যক পিতামাতার সচেতন হওয়া উচিত। বিশেষ করে নাম রাখার আগে সেই নামের অর্থ এবং প্রেক্ষাপট জেনে নেওয়া দরকার।
তাই আজকের পোষ্টে আপনাদের জন্য ছেলে এবং মেয়েদের জন্য কিছু অর্থবহ ইসলামিক নামের সম্ভার নিয়ে এসেছি।প্রথমেই ছেলে বাচ্চাদের জন্য বাছাইকৃত কিছু নামের তালিকা দেখে নেওয়া যাক।

 

ইসলামিক নাম ছেলেদের অর্থসহ (এক শব্দে)

আরহাম নামের অর্থ দয়ালু,রহমতময়,সদয়।আরহাম একটি আরবী নাম।আরহাম নামের ইংরেজী বানান হলো (Arham)।আরহাম বলতে বুঝায় দয়ালু।আরহাম একটি অসাধারন সুন্দর নাম।
সামীম নামের অর্থ চরিত্রবান (Shamim)
সাকীফ নামের অর্থ সুসভ্য (Shakif)
আজওয়াদ নামের অর্থ অতি উত্তম (Ajwad)
সাবাহ নামের অর্থ সকাল (Sabah)
ফাইয়ায নামের অর্থ অনুগ্রহকারী (Faiyaz)
সালাহ নামের অর্থ সৎ (Salah)
নাবহান নামের অর্থ খ্যাতিমান (Nabhan)
তাযীন নামের অর্থ সুন্দর (Tazin)
তাহমীদ নামের অর্থ সর্বক্ষন আল্লাহর প্রশংসাকারী (Tahmid)
ইসফার নামের অর্থ আলোকিত হওয়া (Esfar)
ইসমায়ী নামের অর্থ শ্রবন করা (Ismayee)
ইসাবাহ নামের অর্থ সঠিক (Esabah)
ইসলাহ নামের অর্থ সংস্কার (Islah)
আজরফ নামের অর্থ সুচতুর (Ajraf)
আজফার নামের অর্থ বিজয় (Ajfar)

 

ইসলামিক নাম মেয়েদের অর্থসহ (এক শব্দে)

 

রেযাহ নামের অর্থ পরমানু (Rezah)
তাবিয়া নামের অর্থ অনুগতা (Tabia)
জামিমা নামের অর্থ ভাগ্য (Zamima)
রোশনী নামের অর্থ আলো (Rashni)
সায়িমা নামের অর্থ রোজাদার (Saima)
শারিকা নামের অর্থ উজ্জ্বল (Shariqa)
শায়িরা নামের অর্থ বুদ্ধিমান (Shaira)
সুবাহ নামের অর্থ প্রভাত (Subah)
যাহরা নামের অর্থ রুপবতী ফুল (Zahra)
যারীন নামের অর্থ সোনালী (Zarin)
আফিফা নামের অর্থ সাধ্বী (Afifa)
আকিলাহ নামের অর্থ বুদ্ধিমতী (Aqilah)
আনিকা নামের অর্থ রুপসী (Aniqa)
নায়েলা নামের অর্থ অর্জনকারিনী (Nailah)

 

অর্থসহ ছেলেদের ইসলামিক নাম (দুই শব্দে)

 

তালাল ওয়াযিহঃ-

তালাল ওয়াযিহ নামের অর্থ চমৎকার সুন্দর (Talal Wazih)

তকী তহমিদঃ-

তকী তহমিদ নামের অর্থ ধার্মিক প্রতিনিয়ত (Taqi Tahmid)

তকী তাজওয়ারঃ-

তকী তাজওয়ার নামের অর্থ ধার্মিক রাজা (Taqi Tazwar)

তকী ইয়াসিরঃ-

তকী ইয়াসির নামের অর্থ ধার্মিক ধন্য (Taqi Yasir)

সামিন ইয়াসারঃ-

সামিন ইয়াসার নামের অর্থ মূল্যবান সম্পদ (Shamin Yasar)

জুহায়ের ওয়াসিমঃ-

জুহায়ের ওয়াসিম নামের অর্থ উজ্জল সুন্দর গঠন (Zuhayer Wasim)

মুনাওয়ার মেজবাহঃ-

মুনাওয়ার মেজবাহ নামের অর্থ প্রজ্জলিত প্রদীপ (Munawar Mejbah)

আখতার নিহালঃ-

আখতার নিহাল নামের অর্থ সবুজ চারা গাছ (Akhter Nihal)

জুহায়ের আনজুমঃ-

জুহায়ের আনজুম নামের অর্থ উজ্জ্বল তারা (Zuhayer Anjum)

মাহির আসেফঃ-

মাহির আসেফ নামের অর্থ দক্ষ যোগ্যব্যক্তি (Mahir Asef)

মাহির আসহাবঃ-

মাহির আসহাব নামের অর্থ দক্ষ বীর (Mahir Ashab)

মাহির তাজওয়ারঃ-

মাহির তাজওয়ার নামের অর্থ দক্ষ রাজা (Mahir Tazwar)

মাহির ফয়সালঃ-

মাহির ফয়সাল নামের অর্থ দক্ষ বিচারক (Mahir Faysal)

আবরার হামীমঃ-

আবরার হামীম নামের অর্থ ন্যায়বান বন্ধু (Abrar Hamim)

হাসীন আলমাসঃ-

হাসীন আলমাস নামের অর্থ সুন্দর হীরা (Hasin Almas)

ফাতিন ইলহামঃ-

ফাতিন ইলহাম নামের অর্থ সুন্দর অনুভুতি (Fatin Elham)

ফারহান মাশুকঃ-

ফারহান মাশুক নামের অর্থ প্রফুল্ল প্রেমাস্পদ (Farhan Mashuq)

ফারহান ইহসাসঃ-

ফারহান ইহসাস নামের অর্থ প্রফুল্ল অনুভূতি (Farhan Ehsas)

ফাহিম আশহাবঃ-

ফাহিম আশহাব নামের অর্থ বুদ্ধিমান বীর (Fahim Ashab)

আতিক আহনাফঃ-

আতিক আহনাফ নামের অর্থ সম্মানিত খাটি ধার্মিক (Atiq Ahnaf)

আজমাইন ইকতিদারঃ-

আজমাইন ইকতিদার নামের অর্থ পূর্ন ক্ষমতা (Ajmain Ektidar)

আয়মান আওসাফঃ-

আয়মান আওসাফ নামের অর্থ নির্ভীক গুনাবলী (Ayman Awsaf)

আতহার জুহায়েরঃ-

আতহার জুহায়ের নামের অর্থ অতি পবিত্র উজ্জল (Athar Zuhayer)

আতেফ আরহামঃ-

আতেফ আরহাম নামের অর্থ দয়ালু সংবেদনশীল (Atef Arham)।আরহাম একটি অসাধারন সুন্দর নাম।আরহাম নামের অর্থ দয়ালু,রহমতময়,সদয়, অতএব আতেফ আরহাম নামের অর্থ দাঁড়ায় দয়ালু সংবেদনশীল।আরহাম নামটি একটী আরবী নাম।

আবইয়াজ আবরেশামঃ-

আবইয়াজ আবরেশাম নামের অর্থ সাদা বর্নের সীল্ক (Abyaz Abresham)

আদিব আখতারঃ-

আদিব আখতার নামের অর্থ ভাষাবিদ বক্তা (Adib Akhter)

আহনাফ মুইজঃ-

আহনাফ মুইজ নামের অর্থ ধর্মবিশ্বাসী সম্মানিত (Ahnaf Muiz)

আসির ইনতিশারঃ-

আসির ইনতিশার নামের অর্থ সম্মানিত বিজয় (Asir Entishar)

আহনাফ আকিফঃ-

আহনাফ আকিফ নামের অর্থ ধর্মবিশ্বাসী উপাসক (Ahnaf Aqif)

আবরার জাহিনঃ-

আবরার জাহিন নামের অর্থ ন্যায়বান বিচক্ষন (Abrar Zahin)

 

অর্থসহ মেয়েদের ইসলামিক নাম (দুই শব্দে)

 

আফরা সাইয়ারাঃ-

আফরা সাইয়ারা নামের অর্থ সাদা তারা (Afra Saiyara)

আফিয়া হোমায়রাঃ-

আফিয়া হোমায়রা নামের অর্থ পূণ্যবতী রুপসী (Afia Homaira)

আফিয়া আনতারাঃ-

আফিয়া আনতারা নামের অর্থ পূণ্যবতী বীরঙ্গনা (Afia Antara)

আফরা নাওয়ারঃ-

আফরা নাওয়ার নামের অর্থ সাদা ফুল (Afra Nawar)

যারীন ফরহাতঃ-

যারীন ফরহাত নামের অর্থ সোনালী আনন্দ (Zarin Forhat)

জেবা ফাওজিয়াঃ-

জেবা ফাওজিয়া নামের অর্থ যথার্থ সফল (Jeba Fawzia)

সারাহ ওয়ামিয়াঃ-

সারাহ ওয়ামিয়া নামের অর্থ গানরত বৃষ্টি (Sarah Wasima)

নিশাত তাহিয়াতঃ-

নিশাত তাহিয়াত নামের অর্থ আনন্দ অভিবাদন (Nishat Tahiyat)

নওসিন শারমিলিঃ-

নওসিন শারমিলি নামের অর্থ সুন্দরী লজ্জাবতী (Nowshin Sharmily)

রিফাহ তাসনিয়াঃ-

রিফাহ তাসনিয়া নামের অর্থ ভাল প্রশংসা (Rifah Tasnia)

ফারাহ উলফাতঃ-

ফারাহ উলফাত নামের অর্থ আনন্দ উপহার (Farah Ulfat)

ফাইরুজ সাদাফঃ-

ফাইরুজ সাদাফ নামের অর্থ সমৃদ্ধ শালী ঝিনুক (Fairuz Sadaf)

ফাবিহা লামিসাঃ-

ফাবিহা লামিসা নামের অর্থ আনন্দ অনুভূতি (Fabiha Lamisa)

আনতারা জাইমাঃ-

আনতারা জাইমা নামের অর্থ বীরঙ্গনা নেত্রী (Antara Zaima)

 

নবজাতক শিশুর ইসলামিক নামের আরবী বানান,অর্থ ও প্রতিশব্দগুলো জানতে ভিজিট করুন এই লিংকে
সুন্দর একটি ইসলামিক নাম একজন মুসলিম শিশুর জন্মগত অধিকার।তাই শিশুর জন্মের পরই অর্থ বুঝে শিশুর জন্য একটি নাম নির্ধারন করুন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *