অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় (নতুন নিয়ম ২০২২)

টিপস এবং ট্রিকস ট্রেন টিকিট
২৬/০৩/২০২২ তারিখ থেকে বাংলাদেশ রেলওয়ের ই-টিকেটিং সিস্টেমে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার নতুন নিয়ম কার্যকর করা হয়েছে।
সেই অনুযায়ী “রেলসেবা ” এপসের কার্যকারিতা বন্ধ থাকায় শুধুমাত্র ওয়েবসাইট থেকে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা যাবে।

 

ট্রেনের টিকিট ক্রয়

ট্রেনের টিকিট ক্রয় Registration প্রক্রিয়া

ওয়েবসাইট থেকে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার জন্য প্রথমে রেজিষ্ট্রেশন প্রক্রিয়া করতে হবে।
একজন ইউজার একবার রেজিস্ট্রেশন করলেই হবে। পরবর্তীতে আগের ইউজার আইডি, পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগিন করে টিকিট ক্রয় করতে পারবে।
ইউজার রেজিস্ট্রেশন, সিট বাছাই, পেমেন্ট এবং টিকিট সংগ্রহের প্রক্রিয়াগুলো সঠিক ভাবে সম্পন্ন করতে পারলে ওয়েবসাইট থেকে সহজেই ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা সম্ভব।
প্রথমেই আমরা রেলওয়ের E-Ticket সিস্টেমে ইউজার রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়াটি ধাপে ধাপে আলোচনা করবো।
প্রথমে আপনার কম্পিউটার, ল্যাপটপ, এন্ড্রোয়েড বা যে কোন ডিভাইসের আপনার পছন্দের একটি ব্রাউজার থেকে www.eticket.railway.gov.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে হবে।
ওয়েব সাইটটির নীচের দিকে “Registration” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
Create an Account” নামের নতুন একটি Page আসবে। এখানে “Personal Information” এর সংশ্লিষ্ট ঘরগুলো প্রয়োজনীয় তথ্যাদি দিয়ে পূরণ করতঃ Security code ঘরের পাশে প্রদর্শিত “Security Code” দিয়ে পূরণ করে Register বাটনে ক্লিক করতে হবে।
সকল তথ্যাদি সঠিক থাকলে “Registration Successful” নামে নতুন একটি Page আসবে।
ই-টিকেটিং সিস্টেম থেকে তাৎক্ষনিকভাবে আপনার প্রদত্ত ই-মেইল ঠিকানা Bangladesh Railway এর থেকে একটি ই-মেইল পাঠানো হবে।
আপনার ই-মেইল এর মেসেজ বক্সে Bangladesh Railway প্রদত্ত ই-মেইলটি খুলতে হবে।
মেসেজের ভিতর রক্ষিত “Click” লিংকটিতে ক্লিক করতে হবে। এ প্রক্রিয়ার পর যাত্রীর Registration প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ হবে।

 

টিকিট বুকিং বা ট্রেনের টিকিট ক্রয় প্রক্রিয়া

প্রথমে www.eticket.railway.gov.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে হবে।
“Log in” এর প্যানেল ই-মেইল ঠিকানা, পাসওয়ার্ড এবং সিকিউরিটি কোড পূরণ করতঃ “Log in” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
এরপর যে Pageটি আসবে তাতে “Purchase ticket” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
এখানে যে Pageটি আসবে সে Page এ আপনার চাহিত ভ্রমণ তারিখ, প্রারম্ভিক স্টেশন, গন্তব্য স্টেশন, ট্রেনের নাম, শ্রেনী, টিকেট সংখ্যা যেভাবে রয়েছে তা পূরণ করতে হবে।
এর পরের পেইজে “Registration Seat Available” দ্বারা চাহিত টিকেট এবং এর মূল্যমান জানিয়ে দেয়া হবে। টিকেট থাকলে “Purchase ticket” বাটন ক্লিক করতে হবে।

 

টিকিটের মূল্য পরিশোধ / পেমেন্ট সিস্টেম

ক্রেডিট কার্ড, ক্যাশ কার্ড কিংবা ব্রাক ব্যাংকের একাউন্ট মারফত যাত্রির জমাকৃত টাকা থেকে টিকেট মূল্য কেটে নেয়া হবে এবং যাত্রীর ই-মেইলে ই-টিকেটটি পাঠিয়ে টিকেট নিশ্চিত করা হয়ে থাকে।
ই-মেইল মেসেজ বক্স থেকে প্রেরিত টিকেটটির প্রিন্ট নিয়ে ফটো আইডিসহ ই-টিকেট প্রদত্ত “Ticket Print Information” প্রদান করে সংশ্লিষ্ট সোর্স ষ্টেশন থেকে যাত্রার পূর্বে ছাপানো টিকেট সংগ্রহ করতে হবে।

ট্রেনের টিকিট ক্রয়

ট্রেনের টিকিট ক্রয়
আজকের পোষ্টে নতুন নিয়মে শুধুমাত্র অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার নিয়ম ধাপে ধাপে আলোচনা করা হলো।

অগ্রীম ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার সময়

প্রথমেই বলে রাখি অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার ক্ষেত্রে সাধারন যাত্রীদের অভিজ্ঞতা মোটেও সুখকর নয়।
বেশীরভাগ ক্ষেত্রে শোনা যায় অনলাইনে টিকিট নাকি পাওয়া যায় না অথবা সব সিট বুক দেখা যায়।
এক্ষেত্রে সহজ সমাধান হলো রেলসেবার এপ্লিকেশনে টিকিট বুকিং এবং অগ্রীম ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার সময় শুরু হয় সকাল ৮ টায়।
অই সময়ের আগেই প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট এবং বিকাশ একাউন্টে পর্যাপ্ত ব্যালান্স রেখে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার চেষ্টা করা হলে আশা করি টিকিট পাওয়া সহজ হবে।
অনলাইনে ট্রেনের অগ্রীম টিকিট কাটার সময় ঠিক কখন শুরু হয় এটা বুঝতে পারলে আপনি অবশ্যই অনলাইন থেকে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করতে পারবেন।
টিকিট ছাড়ার নিদির্ষ্ট দিন বের করে ঠিক সকাল ৮ টায় আপনি অনলাইনে ট্রেনের টিকিট বুকিং এবং ক্রয় করার চেষ্টা করলে আশা করি আপনি সফল হবেন।

 

train ticket online book

করোনার বিস্তার রোধে জনস্বার্থে কিছু নতুন নিয়ম কানুন যোগ করা হয়।নতুন নিয়মে অনলাইনে টিকিট ক্রয় করার একমাত্র মাধ্যম রাখা হয়েছে অনলাইন থেকে।
এই নিয়মে যাত্রী নিজেই পছন্দ মতো সিট বুকিং ও ক্রয় করতে পারবে।একজনের টিকিটে যাতে অন্য কেউ ভ্রমন করতে না পারে সেজন্য জাতীয় পরিচয় পত্র ভেরিফিকেশনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

 

যে কারো জন্য train ticket online book করতে পারাটা অনেক বড় সুবিধা।এতে সাধারন যাত্রী নানান ভোগান্তির হাত থেকে রেহাই পেল।
বিশেষ করে টিকিট কাউন্টারের সিরিয়ালে দাঁড়িয়ে চাতক পাখির ন্যায় টিকিটের আশায় দাঁড়িয়ে থাকার হাত থেকে সাধারন যাত্রীদের মুক্তি মিলেছে।
প্রযুক্তির কল্যানে আজ আমরা ঘরে বসেই ট্রেনের টিকিট কাটার সুযোগ পাচ্ছি।এর চেয়ে সুবিধা আর কি হতে পারে?
বিশেষ করে যারা নিয়মিত রেল ভ্রমন করে থাকেন টিকিট কাটা নিয়ে তারা সবসময় একটা দুশ্চিন্তায় থাকতেন।তাদের জন্য তো বটেই পাশাপাশি এটা সকলের জন্য সুবিধাজনক।

 

তবে হ্যাঁ এই সুবিধাটুকু ভোগ করতে হলে কিছু জিনিষ থাকতে হবে যেমন ইন্টারনেট কানেকশন অবশ্যই থাকতে হবে,একটা স্মার্টফোন অথবা যে কোন ওয়েব ব্রাউজার এবং নিজের জাতীয় পরিপত্রের নাম্বার।
আর টিকিটের মুল্য পরিশোধের জন্য বিকাশ একাউন্ট অথবা প্রচলিত কার্ড।তাইলেই আপনি অনলাইন থেকে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করতে পারবেন।
তো আসুন আর কথা না বাড়িয়ে দেখে নেওয়া যাক কিভাবে train ticket online book এবং ক্রয় করা যায়।
পুরা প্রক্রিয়াটা সহজ নয় কারন কয়েকটি ধাপে প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে।
ঘরে বসে ট্রেনের লোকেশান জেনে নিতে আরো পড়ুনঃ-
ট্রেনের অবস্থান নির্ণয়: Train location bd

 

বিকাশের মাধ্যমে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয়

সিট বাছাই করে Purchese বাটনে ক্লিক করলেই আপনাকে পেমেন্ট পেজ এ নিয়ে যাবে।ভিসা কার্ড, রকেট বা বিকাশের মাধ্যমে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা যাবে।
দেখানো ধাপগুলো অনুসরন করে সম্পন্ন করতে হবে আপনার ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন।
পেমেন্ট কনফার্ম হলে এপসের হিস্টরি বাটনে/মোবাইল এসএমএস অথবা ইমেইলে আপনার ই-টিকিট টি পেয়ে যাবেন।

 

এন্ড্রোয়েড ফোনের ওয়েব ব্রাউজার দিয়ে ট্রেনের টিকিট ক্রয়

যেকোন ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য সর্ব প্রথম আপনাকে রেলওয়ের ওয়েবসাইট এর এই ঠিকানায় ঢুকতে হবে।
বাকী প্রক্রিয়া গুলো প্রায় একই,যেভাবে এন্ড্রোয়েড ফোনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা যাবে।

 

ট্রেনের টিকিট ক্রয়

রেলওয়ে সাইটে টিকিট অনুসন্ধান 

ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ

দেখানো ধাপগুলো শেষ পর্যন্ত অনুসরন করতে পারলে আপনি আপনার প্রথম অনলাইনে টিকিট ক্রয় করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন।
প্রদত্ত নির্দেশনা মোতাবেক পেমেন্ট করার পর আপনার কাজ প্রায় শেষ।  আপনার ফোন এসএমএস বা ইমেলে আসা টিকিটের পিডিএফ ফাইলটি হাতের কাছের কোন কম্পিউটারের দোকান থেকে ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করা সম্পন্ন করুন অথবা যাত্রার ৬ ঘন্টা আগে ষ্টেশন কাউন্টার থেকে প্রিন্ট করে নিতে পারবেন।

 

শেষকথা

যেহেতু সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক ট্রেনের টিকিট শুধুমাত্র ওয়েবসাইট এবং কাউন্টার ছাড়া অন্য কোন ভাবে সংগ্রহ করার সুযোগ নেই সেহেতু ট্রেনের টিকিট নিঝঞ্ঝাটে সংগ্রহ করতে হলে নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট থেকেই করতে হবে।
যদিও অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার প্রক্রিয়াটা একটু জটিল তথাপি দেখানো ধাপ গুলো অনুসরন করে অনলাইন থেকে টিকিট কাটা সম্ভব।
উপরোন্ত একটু বুদ্ধি করে অনলাইন থেকে টিকিট কাটতে পারলে আপনি অনেক গুলো ভোগান্তির হাত থেকে বেচে গেলেন।
আপনার যাত্রা শুভ হোক।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *