বিসিএস প্যারা

এক প্রার্থীর আবেগঘন পোস্ট ফেসবুকে ভাইরাল

বাংলাদেশ
গত ৪০ তম বিসিএস থেকে আমার প্রিলি দেওয়া শুরু হয়, এরপর ৪০ তম প্রিলি উৎরাতে পারিনি, তারপর একে একে ৮ ব্যাংক প্রিলি, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক (জেনারেল + ক্যাশ) দুটোই, NSI ফিল্ড অফিসার, দুদক DAD, BB Officer এই এক্সামগুলোর প্রিলি টেনেটুনে উৎরানো গেছে, রিটেন দিয়েছি সব গুলোরই। কিন্তু এখন পর্যন্ত একটারও রিটেন পাস করিনি।

 

কেউ কেউ বলে সব অ্যান্সার করে আসতে পারছো কি না, মানলাম যে হ্যা আমি ৫-১০ মার্ক কঅরে ছেড়ে আসছিলাম আগের এক্সাম গুলোতে বা ম্যাথ ভুল যেতো ইত্যাদি।দুঃখের কাহিনী, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের অফিসার জেনারেলে ৭ টার মধ্যে ৫ ম্যাথ করেও আমার রিটেন পাস আসেনি।আবার ক্যাশে ৭ টায় ৬ টা কারেক্ট করেও পাস আসেনি।BB GO তে ৪ টা কারেক্ট হইছিলো আল্লাহ দিলে তবে এটা সত্য BB GO তে ফোকাস অনেক খারাপ হইছিলো আমি পাস করার আশাও করিনি।

 

আবার, NSI এর Field Officer এর রিটেনে ১০ মার্ক ছুটে গেছিলো, ম্যাথ আল্লাহ দিলে সব হইছিলো, একই অবস্থা দুদকের DAD তেও।
ট্রান্সলেশন বা গ্রামাটিক্যাল ভুল থাকলে থাকতে পারে তবে আল্লাহ রহমতে যতদূর জানি Newspaper পড়ি + এমনিতেও Idioms, Preposition, Words + গ্রামার সাইড, সেন্টেন্স কারেকশন অল্প করে পড়ার চেষ্টা থাকেই প্রতিদিন সেটা এফবি বা অন্য যেকোনো জায়গায়ই হোক।

 

রিটেনে ডাটা ডাটা নিয়ে এক অস্থির মাতামাতি, সেই ডাটাও দেয়ার মত প্রশ্ন আসলে দিতে ট্রাই করছিএর পরেও আমার কুফা ছাড়তেছে না কেনো ? আমার ঝামেলাটা কি আমি বুঝতেছিনা । আর কত ফেইল্ড হবো? ম্যাথ আহামরি অতটা পারিনা তবে এযাবৎকাল যে রিটেন এক্সামগুলো দিছি আল্লাহ রহমতে রিটেনে ম্যাথ বা ইংরেজি ট্রান্সলেশন অংশ অত খারাপ হয়নি।

 

কতজনের রোল নাম্বার দেখি ফলাফল লিস্টে, আমার সআমনে পেছনের এর ওর আসে, আমার আসে না। রিটেন রেজাল্ট দিলেই আগে থেকেই কেন জানি ফিল হয় আমার তো আসেই নি রেজাল্ট দেখে কি আর করব। তারপরও চোখ বুলাই ভয়ে ভয়ে, পরে দেখি আসলেই আসেনি, ডাবল চেক, ট্রিপল চেক, ফোর্থ চেক কত চেকই না করি, লাভ কী? ঐ একই চোরাবালিতে ডুবে আছি। বাকি লিখা গুলো গড়পড়তা হোক আর below mark হোক, কতই না জানি খারাপ করতেছি যে প্যানেলে আসার মতও কাছাকাছি পজিশন বা পাশই করছি না। রেগুলার পত্রিকাও পড়তেছি।

 

আমার হাতের লিখা নিম্ন-মধ্যম ক্যাটাগরির, ততটা হ্যান্ডসাম নয়। হাতের লিখায় কতই বআ কি আসে? ৯০/১০০ বা ১৮০/২০০ অ্যান্সার করে এসেও, টেনেটুনেও পাশ আসছে না। আমি রীতিমত আতঙ্কেই আছি, আমার সাথে কোনো কোনো বন্ধুর অলরেডি সিনিয়র অফিসার, বিবি জেনারেল, মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষক পদে চাকরি হয়েছে। এ পর্যন্ত ভাইভা দিতে পারছি একটা ( BSCIC এর Promotion Officer ২০২০ এরটা ) তাও এটাও পারতাম না যদি রিটেন থাকতো। ভাইভা ফেইল আবার ।

 

JBC এর প্রিলি রিটেন কম্বাইন্ড ছিলো, NBC AD প্রিলি রিটেন কম্বাইন্ড ছিলো পাশ করিনি (আজকে রেজাট দিলো) , আর সেই দুঃখেই এখানে পোস্ট দেওয়া । আপনারা তো অনেকেই রিটেন দিচ্ছেন পাশ করতেছেন, ভাইভা দিচ্ছেন, চাকরি পাচ্ছেন, পেয়েও গেছেন অনেকেই অনেক আগেই। আপনাদের লিখার মান আরা আমার লিখার মানের মধ্যে অবশ্যই অনেক গ্যাপ আছে অর্থাৎ আমার lacking আছে এটা নিঃসন্দেহে সত্য। লিখার স্টাইলে সমস্যা? নাকি গোছানোর ধরণে সমস্যা? কেউ কি একটু পরামর্শ দিবেন প্লিজ?

 

এযাবতকাল একটা রিটেনই পাশ করেছি ( Exim Bank, TO যেটার ভাইভা ছিলো মার্চ ২০২০ lockdown এর eve moment-এ )।
প্রিলির প্রেপারেশন চালিয়ে নেওয়ার মত বলা যআয় আর কি, তবুও প্রিলিতেও তো ফেইল আসেই সময় সময়। খটকা : আমার Applicant’s Copy তে নাম ব্যবহার করি সেখানে ( Md. ) এভাবে লিখি যা সার্টিফিকেটের সাথে Identical কিন্তু সিগন্যাচারে আমি ( MD. ) এভাবে লিখি। এটা কি কোনো সমস্যা কি না, আল্লাহ মালুম। সিগন্যাচার এর সাথে অ্যাপ্লিক্যান্টস কপির নামের বানানের ১০০% মিল থাকার পরেও Upper Case বা Lower Case কি কোনো সমস্যা? সিগ্ন্যাচার এর সাথে অ্যাপ্লিক্যান্টস কপির নামের মিল না থাকলেও তো সমস্যা নেই কারণ সব রিটেনেই সিগন্যাচার দেওয়ার সঅময় আমার সিগন্যাচার শিটে অবাইকে দেখতাম পেচিয়ে, বা অন্যান্য স্টাইলে সিগন্যাচার দিতো, কাজেই তাহলে তো আমার টাও সমস্যা হওয়ার কথা না।
বুঝলাম না, কোথায় ঘাপলা আছে আমার? সবাই তো আর কোচিঙ করে না রিটেনের জন্য তবুও তো ৫ টা রিটেন দিয়ে অন্তত একটাতো পাশ করতেছে। আমার এত বেহাল দশা। । সিনিয়র আপু বা ভাইয়াদের পরামর্শ একান্ত কাম্য। আমি খুব হতাশাগ্রস্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *